আপনি এখানে:Homeজেলা ক্যাম্পেইনজেলাপর্যায়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস উদযাপন ২০১৪

জেলাপর্যায়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস উদযাপন ২০১৪

world helth day৭ এপ্রিল বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস। ১৯৪৭ সালের জাতিসংঘ প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর মানুষের স্বাস্থ্য রক্ষার গুরম্নত্ব অনুধাবন করে তার সমাধান ও সংশিস্নষ্ট দেশকে প্রয়োজনীয় সহায়তা দানের মাধ্যমে শানিত্মপূর্ণ, সুখী ও সমৃদ্ধ পৃথিবী গড়ে তোলার লক্ষ্যে ১৯৪৮ সালের এই দিনে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা গঠিত হয়। পৃথিবীর ১৯৪ টি দেশ বর্তমানে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সদস্য। সমসাময়িক স্বাস্থ্যগত সমস্যা অথবা জনস্বাস্থ্য  বা পরিবেশের ক্ষতি হতে পারে এমন বিষয়ে জনগণের মাঝে সচেতনতা সৃষ্টি করা বিশ্ব স্বাস্থ্য  দিবস উদযাপনের মূল লক্ষ্য। জনগনের অংশগ্রহণ এবং জনসচেতনতা সৃষ্টির জন্য এই দিবস উপলক্ষে প্রতি বছর একটি প্রতিপাদ্য তৈরী করা হয়। বিশ্ব স্বাস্থ্য  দিবসে এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় ছিলো “Vector-Borne Diseases: Protect Yourself” যার বাংলা ভাবার্থ “মশা মাছি দূরে রাখি, রোগ বালাই মুক্ত থাকি”।

এবছর সুপ্র’র প্রতিপাদ্য বিষয় ছিলো “আমরা সবাই হবো সচেতন; আর নয় বাহক বাহিত রোগে মরণ”। স্বাস্থ্য অধিকার সম্পর্কে সচেতনতা তৈরি, সরকারি স্বাস্থ্য সেবা প্রতিষ্ঠানের সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য প্রচারাভিযান, সরকারি হাসপাতাল ও স্বাস্থ্য কেন্দ্রে দরিদ্র জনগণের অভিগম্যতা বাড়ানো এবং স্বাস্থ্য খাতে সরকারের বাজেট বরাদ্দ বৃদ্ধির উদ্দেশ্যে প্রচারাভিযান কর্মসূচির অংশ হিসেবে সুপ্র প্রতি বছর জেলা ও জাতীয় পর্যায়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য  দিবস পালন করে থাকে। এবছরও অন্যান্য বছরের ন্যায় জেলা পর্যায়ে দিবসটি উদযাপিত হয়েছে। নিম্নে তার সংক্ষিপ্ত প্রতিবেদন তুলে ধরা হলো।

টাঙ্গাইলঃ

স্বাস্থ্য  দিবস উদযাপন উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনা সভা।

Tangail‘আমরা সবাই হবো সচেতন; আর নয় বাহক বাহিত রোগে মরণ’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে সুশাসনের জন্য প্রচারভিযান সুপ্র টাঙ্গাইল জেলা কমিটি স্থানীয় স্বাস্থ্য বিভাগ ও এনজিও সমূহের সাথে একসাথে বিভিন্ন কর্মসূচীতে অংশগ্রহণ করেন। ৭ এপ্রিল ২০১৪ তারিখ, সোমবার সকাল ৮ টায় জেনারেল হাসপাতাল টাঙ্গাইল চত্তর থেকে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালী শহরের প্রানকেন্দ্র ঘুরে শিশু একাডেমী প্রাঙ্গঁণে শেষ হয়। র‌্যালীটি উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি মোঃ আনিছুর রহমান মিঞা, জেলা প্রশাসক, টাঙ্গাইল।
সকাল ৯ টায় শিশু একাডেমী মিলনায়তনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন ডাঃ সৈয়দ ইবনে সাঈদ, সিভিল সার্জন, টাঙ্গাইল। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিতি থেকে আলোচনা করেন ডাঃ মোঃ নূর মোহাম্মদ সহকারি পরিচালক, জেনারেল হাসপাতাল; মোঃ লুৎফুল কিবরিয়া উপপরিচালক, পরিবার পরিকল্পনা বিভাগ।

সভার শুরম্নতে স্বাগত বক্তব্য দেন, ডেপুটি সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ সদর উদ্দিন। সুপ্র’র প্রতিপাদ্যে বিষয়ের উপর আলোকপাত করেন সুপ্র টাঙ্গাইল জেলা কমিটির সম্পাদক ও জাতীয় পরিষদ সদস্য মঞ্জু রাণী প্রামানিক। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন মোঃ রাকিব হোসাইন, সেন্টার ইনচার্জ বি ডবিস্নউ এইচসি; নাজমুল সালেহীন, নির্বাহী পরিচালক, সেবক; রওশনারা লিলি, নির্বাহী পরিচালক, আরপিডিও ;শামছুন্নাহার, ইন্সট্রাক্টর নার্সিং ইন্সটিটিউট, টাঙ্গাইল। দিবসটি উদযাপনে সার্বিক ব্যবস্থাপনা ও সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করেন, মোঃ মঞ্জুর হাসান তালুকদার, সিনিয়র স্বাস্থ্য  শিক্ষা অফিসার, সিভিল সার্জন অফিস, টাঙ্গাইল।

সাতক্ষীরাঃ

বিশ্ব স্বাস্থ্য  দিবসে মানববন্ধন কর্মসূচি।

Shatkhira৭ এপ্রিল ২০১৪, সোমবার বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস উদযাপন উপলক্ষে সাতক্ষীরায় সুপ্র’র উদ্যোগে বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। ‘আমরা সবাই হবো সচেতন; আর নয় বাহক বাহিত রোগে মরণ’-শীর্ষক শ্লোগানকে সামনে রেখে সুশাসনের জন্য প্রচরাভিযান-সুপ্র, সাতক্ষীরা জেলা কমিটি সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সামনে সকাল ৯টায় দীর্ঘ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে। এ উপলক্ষে আয়োজিত মানববন্ধন কর্মসূচি শেষে সমাবেশে সুপ্র সাতক্ষীরা জেলা কমিটির সম্পাদক মাধব চন্দ্র দত্তের সঞ্চালনায় বক্তারা সুপ্র’র পক্ষ থেকে নিম্নোক্ত দাবিনামা উত্থাপন করেনঃ

 

 

  • মৌলিক চাহিদা নয়,স্বাস্থ্য কে মৌলিক অধিকার হিসেবে সংবিধানে অন্তর্ভূক্ত করতে হবে;
  • জাতীয় বাজেটে স্বাস্থ্য খাতে কমপক্ষে জিডিপি-এর ৩ শতাংশ অথবা মোট বাজেটের ১০ শতাংশ বরাদ্দ দেয়ার পাশাপাশি বাজেটের সুষম বন্টন এবং বাজেট ব্যবহারে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে হবে;
  • সরকারের অঙ্গীকার মোতাবেক কমিউনিটি ক্লিনিকের যথাযথ বাসত্মবায়ন ও তদারকি ব্যবস্থা জোরদার করতে হবে;
  • স্বাস্থ্য  খাতের বাণিজ্যীকরণ বন্ধ করতে হবে;
  • স্থানীয় পর্যায়ে সরকারি স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্রে  বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের ব্যবস্থা করতে হবে;
  • স্বাস্থ্যক্ষেত্রে বিরাজমান জনবল সংকট নিরসনে অবিলম্বে সকল শূন্য পদে নিয়োগ নিশ্চিত করতে হবে;
  • ইউনিয়ন, উপজেলা ও জেলা পর্যায়ের সকল হাসপাতালে প্রয়োজনীয় ওষুধপত্র এবং চিকিৎসা সরঞ্জামাদি সরবরাহ নিশ্চিত করতে হবে;
  • পাঠ্যপুস্তকে স্বাস্থ্য ও পুষ্টি সম্পর্কিত বিষয় অনত্মর্ভুক্ত করা এবং স্বাস্থ্য  সম্পর্কে জনসচেতনতা সৃষ্টিতে ব্যাপক প্রচার কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে;

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উন্নয়নকর্মী অপরেশ পাল, তহমিনা খাতুন, শ্যামল কুমার বিশ্বাস, লুইস রানা গাইন, ফারম্নক রহমান, সিরাজুন সঞ্জু প্রমুখ।

চুয়াডাঙ্গাঃ

স্বাস্থ্য দিবস উদযাপন উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনা সভা।

Chuadangaগত ৭ এপ্রিল ২০১৪, সোমবার সকাল ৯.০০ টায় সুশাসনের জন্য প্রচারাভিযান-সুপ্র চুয়াডাঙ্গা জেলা কমিটির উদ্যোগে “আমরা সবাই হবো সচেতন; আর নয় বাহক-বাহিত রোগে মরণ” এই প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে চুয়াডাঙ্গা জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের আয়োজনে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়। র‌্যালীটি সিভিল সার্জন অফিস থেকে রঙ্গিন ব্যানার, ফেস্টুন সহযোগে চুয়াডাঙ্গার প্রধান-প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে আবার সিভিল সার্জন অফিসে এসে শেষ হয়।
সকাল ১০.০০ টায় নার্সিং ট্রেনিং ইনষ্টিটিউটে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সিভিল সার্জনের সভাপতিত্বে উক্ত আলোচনা সভায় বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি সংস্থার প্রতিনিধিসহ সুপ্র জেলা কমিটির প্রতিনিধিবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানে সুপ্র চুয়াডাঙ্গা জেলা কমিটির সদস্য, রাজনীতিবিদ, জনপ্রতিনিধি, নাগরিক সমাজের প্রতিনিধি, স্বাস্থ্য কর্মী, শিক্ষক, ছাত্র, সাংবাদিক, এনজিও প্রতিনিধিসহ প্রায় ২৩০ জন উপস্থিত ছিলেন । এর মধ্যে নারীঃ ১২০ জন; পুরম্নষঃ ১১০ জন ।

খুলনাঃ

স্বাস্থ্য  দিবস উদযাপন উপলক্ষে র‌্যালী ও প্রানায়ামের আয়োজন।

Khulnaগত ৭ এপ্রিল ২০১৪, সোমবার সকাল ৮:৩০ মিনিটে খুলনা স্বাস্থ্য বিভাগ, সিটি কর্পোরেশন এবং স্থানীয় বিভিন্ন বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত র‌্যালীতে সুপ্র খুলনা জেলা কমিটিও তার নিজস্ব ব্যানারে অংশগ্রহণ করে এবং সুপ্রর স্বাস্থ্য দিবসের ধারনা পত্রটি উপস্থিতির মাঝে বিতরন করা হয়। র‌্যালীটি উদ্বোধণ করেন খুলনা স্বাস্থ্য  বিভাগের পরিচালক ডা. মামুন পারভেজ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, ডা. ইয়াছিন আলী সরদার, সিভিল সার্জন খুলনা এবং আনিস মাহমুদ, জেলা প্রশাসক, খুলনা।
বিকাল ৫ টায় স্থানীয় আহসান আহম্মেদ রোডস' অরোতীর্থ বিদ্যাপিঠের শিক্ষক-শিক্ষিকাবৃন্দ, ও কিছু নাগরিক সমাজের ব্যাক্তি বর্গের অংশগ্রহণে বর্তমানে বিশ্বের সর্বাধিক সমাদৃত মেডিটেশন প্রানায়াম অনুষ্ঠিত হয়। প্রাকৃতিক উপায়ে শরীর ও মনকে সুস্থ-শান্ত রাখার এক মাত্র উপায় প্রানায়াম। প্রানায়ামে অংশগ্রহণ শেষে অনুভুতি ব্যাক্ত করার সময় বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ শ্রী অসিত বরন ঘোষ বলেন, এক মাত্র প্রানায়াম-ই পারে মানুষের আয়ু বৃদ্ধি করতে এবং এক জন মানুষের ভিতর সৃষ্টিশীল যা কিছু আছে তা নিংড়ে বের করে আনতে।

ফেসবুক লাইক বক্স

ভিডিও

Go to top